সাংবাদিক হোসাইন জাকিরের মৃত‌্যুতে ওইজেএফবি’র শোক

সাংবাদিক হোসাইন জাকির আর নেই। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে দীর্ঘদিন রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২১শে ফেব্রুয়ারী শনিবার বিকেল ৪টা ৪০ মিনিটে মারা যান তিনি (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

গত বছর অক্টোবরের মাঝামাঝিতে ক্যান্সার ধরা পড়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ভারতের মুম্বাই টাটা মেমোরিয়াল ক্যান্সার হাসপাতাল নেয়া হয়। কিন্তু সেখান থেকে তাকে ফেরত পাঠানো হয়। এরপর তাকে দেশে ফিরিয়ে এনে ফের ডেল্টা মেডিকেল কলেজ হাসপালে ভর্তি করা হয়। দীর্ঘ তিন মাসেরও বেশি সময় ধরে তিনি ডেল্টা হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।
হোসাইন জাকিরের স্ত্রী মেয়ে নিলয় (১৪), ছেলে আকাশ (১১) ও দেড় বছরের শিশুপুত্র স্বপ্নকে নিয়ে পশ্চিম মনিপুরের একটি ভাড়া বাসায় থাকেন। চট্টগ্রামের দৈনিক আজাদী দিয়ে সাংবাদিকতা শুরু করা হোসাইন জাকির দীর্ঘ ১৮ বছর সক্রিয় ছিলেন নিজের পেশায়। তিনি দৈনিক মানবজমিন, আজকের কাগজ, যুগান্তরে কাজ করেন দীর্ঘদিন। যুগান্তরে বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করার এক পর্যায়ে যুক্ত হন দৈনিক আলোকিত বাংলাদেশের সঙ্গে। দায়িত্ব নেন প্রধান প্রতিবেদকের। সর্বশেষ তিনি প্রকাশিতব্য দৈনিক আজকের পত্রিকায়ও নিয়েছিলেন প্রধান প্রতিবেদকের দায়িত্ব।
পেশাগত জীবনে সাংবাদিকতায় সেরা প্রতিবেদনের জন্য ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে ২০০৪, ২০০৬, ২০০৭, ২০০৯ এবং ২০১১ সালে ইউনিসেফ পুরস্কার পান হোসাইন জাকির। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় অনার্স ও মাস্টার্স শেষে সাংবাদিকতাকে পেশা হিসেবে বেছে নেন তিনি।

বিশিষ্ট সাংবাদিক হোসাইন জাকিরের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে ইয়ুথ জার্নালিস্ট ফোরাম, বাংলাদেশ। এক শোক বার্তায় সংগঠনের সভাপতি তানভীর আলাদিন, সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন কাদের, সাংগঠনিক সম্পাদক মতিন আবদুল্লাহ, কোষাধ্যক্ষ এ কে আজাদ ও দফতর সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদসহ সংগঠনের সদস্যবৃন্দ।

এক শোকবার্তায় তারা মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।