তথ্য অধিকার আইন বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে সাংবাদিকদের এগিয়ে আসতে হবে: প্রধান তথ্য কমিশনার

ঢাকা, ২০ জুলাই ২০১৭: প্রধান তথ্য কমিশনার অধ্যাপক ড. মোঃ গোলাম রহমান বলেছেন, তথ্য অধিকার আইন বিষয়ে জনসচেতনতা বাড়াতে কাজ করছে তথ্য কমিশন। ইতিমধ্যে জেলা ও উপজেলা পর্যায়ও অবহিতকরণ সভা করা হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ের সরকারী কর্মকর্তা, স্কুল কলেজের শিক্ষক, আইনজীবি ও সাংবাদিকদের প্রশিক্ষকের ব্যবস্থা করা হয়েছে।এই প্রশিক্ষন পর্যায়ক্রমে ইউনিয়ন পর্যায়েও করা হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

রাজধানীর আগারগাঁও- এ তথ্য কমিশন কার্যালয়ের হলরুমে ইয়ুথ জার্নালিস্টস ফোরাম বাংলাদেশ ( ওয়াইজেএফবি)-এর সদস্যদের ‘তথ্য অধিকার আইন, ২০০৯’ বিষয়ক দিনব্যাপী প্রশিক্ষন কর্মশালার সমাপনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি একথা বলেন।

প্রধান তথ্য কমিশনার বলেন, এই আইনটি প্রশাসনের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করেছে। এবিষয়ে জনগন সচেতন হলে দুর্নীতি অনেকাংশে কমে যাবে। এজন্য সাংবাদিকদের এগিয়ে আসতে হবে। আইনটির বিষয়ে মিডিয়ায় বেশি বেশি প্রচারের ব্যবস্থা করলে জনসচেতনা বৃদ্ধি পাবে।

তিনি বলেন, জনগন যাতে আরও সহজে তথ্য অধিকার আইনের সুবিধা পেতে পারে সেজন্য অনলাইনে ও ক্ষুদে বার্তার মাধ্যমে আবেদনের জন্য একটি এ্যাপস ডেভলপ করা হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশে তথ্য প্রাপ্তির জন্য আবেদন সহজ করা হয়েছে। তথ্য অধিকার আইনের সুফল জনগন ইতিমধ্যে পেতে শুরু করেছে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, তথ্য কমিশনার নেপাল চন্দ্র সরকার ও প্রফেসর ড. খুরশীদা বেগম সাঈদ, তথ্য কমিশনের পরিচালক ভুঁইয়া মোঃ আতাউর রহমান, উপ-পরিচালক ড. মোঃ আঃ হাকিম, সহকারী পরিচালক ( প্রশাসন) হেলাল আহমেদ এবং ইয়ুথ জার্নালিস্টস ফোরামের সাধারন সম্পাদক মহিউদ্দিন কাদের ও সাংগঠনিক সম্পাদক জাওহার ইকবাল খান।

এবারের প্রশিক্ষন কর্মশালায় সংগঠনের বিভিন্ন জেলা ও পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় কমিটির ৩৩ জন সাংবাদিক অংশগ্রহন করেন